জাতীয়

জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের প্রতিবাদে বিএনপির বিক্ষোভে পুলিশের লাঠিচার্জ

জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের প্রতিবাদে ঢাকার প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি পূর্ব ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করছিল।

আজ শনিবার সকাল ১১টার পর প্রেস ক্লাবের সামনে তারা জড়ো হয়ে বক্তব্য দিতে থাকেন।

এর ফলে একপাশের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সমাবেশটি শুরু থেকেই সরাসরি সম্প্রচার করছিল স্থানীয় কিছু গণমাধ্যম।

বেলা ১২টার দিকে পুলিশ তাদের সভা শেষ করতে বলায় বিএনপির নেতাকর্মীদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়।

সে সময়ে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাদের ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠি চার্জ করে।

সেসময় বিএনপির কিছু কর্মী আহত হন। একই সময় বিএনপির কর্মীরা ইট-পাটকেল ছোড়ে।

সমাবেশের শুরুতে বিএনপির কর্মীদের নিজেদের মধ্যে একটা ধাওয়া -পাল্টা ধাওয়া হয় । কিন্তু এর পর প্রায় দুই ঘণ্টা তারা সমাবেশ করেন।

সমাবেশের শেষের দিকে রাস্তার একটা অংশ ছেড়ে দিতে বলে পুলিশ। আর তখনই পুলিশের সঙ্গ সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুনঃ নতুন করে পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার পর

এই সময় বিএনপির সিনিয়র নেতারা প্রেস ক্লাবের মধ্যে চলে যান।

যারা আহত হন তাদের আশপাশের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এর কিছু পরে সিনিয়র নেতারা গাড়ীতে করে ঐ স্থান ত্যাগ করেন।

বিক্ষোভ কর্মসূচীকে কেন্দ্র করে ঐ এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে কিছুক্ষণের জন্য যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা এবং মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডারদের একজন জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সুপারিশ করেছে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)।

এই সিদ্ধান্তের পেছনে কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনায় জড়িত থাকা এবং রাজাকারদের রাজনীতিতে পুনর্বাসনসহ আরো নানা অভিযোগ।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলছেন, এ ব্যাপারে দালিলিক প্রমাণ সংগ্রহ করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

Visit Our Facebook Page : Durdurantonews

Follow Our Twitter Account : Durdurantonews

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + 17 =

Back to top button
Close